ইউএনও ওয়াহিদার মাথার সেলাই কাটা হয়েছে

প্রকাশিত

মুক্তমন ডেস্ক:দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানমের মুখের সেলাইয়ের পর এবার তার মাথার সেলাইও কাটা হয়েছে।

শনিবার সকালে ওয়াহিদার শারীরিক অবস্থার পর্যালোচনা শেষে তার মাথার সেলাই কাটার সিদ্ধান্ত দেয় মেডিকেল বোর্ড।

ইউএনওর চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রধান অধ্যাপক মো. জাহেদ হোসেন আজ সাংবাদিকদের বলেন, ইউএনও ওয়াহিদার মাথায় অস্ত্রোপাচারস্থলের সেলাই কাটা হয়েছে আজ। তিনি এখন আশঙ্কামুক্ত।

তিনি বলেন, তার ডান দিকটা অবশ। তবে তিনি এখন ডান হাতের আঙুল নাড়াচাড়া করতে পারছেন। ফিজিওথেরাপি দিলে অবশ থেকে তার অবস্থা স্বাভাবিক হতে পারে।

এর আগে ইউএনও ওয়াহিদার অস্ত্রোপচারস্থল মুখ ও কপালের সেলাই কাটা হয়। তিনি এখন ঢাকায় ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস অ্যান্ড হসপিটালে চিকিৎসাধীন।

গত ২ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে ইউএনও ওয়াহিদা ও তার বাবাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম করে দুর্বৃত্তরা।

পরদিন সকালে আহতদের উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরে ইউএনও ওয়াহিদার অবস্থার অবনতি হলে তাকে জরুরি ভিত্তিতে বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়।

হামলার ঘটনায় দায়ের করা একটি মামলায় প্রধান আসামিসহ বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শেয়ার করুন