চার মাসের জন্য বাংলাদেশের কোচ লোপেজ

প্রকাশিত

ক্রীড়া প্রতিবেদক : বুধবার থেকেই গুঞ্জন ছিল বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের নতুন কোচ হচ্ছেন ইতালিয়ান ফ্যাবিও লোপেজ। তাই ঘটেছে; বৃহস্পতিবার বিকেলে আনুষ্ঠানিকভাবে তার সঙ্গে ‍চুক্তি স্বাক্ষর করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। বাফুফের পক্ষে এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছেন সহ-সভাপতি তাবিথ আউয়াল।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে তাবিথ আউয়াল বলেছেন, ‘সদ্য সাবেক ডাচ কোচ লোডভিক ডি ক্রুইফের সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ ৮ সেপ্টেম্বর শেষ হয়েছে। আমরা তার সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ আর নবায়ন করিনি। ‍নতুনভাবে এবার আগামী ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত ফ্যাবিও লোপেজকে জাতীয় দলের প্রধান কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। চুক্তি স্বাক্ষরের দিন থেকেই এই মেয়াদের কার্যকারিতা শুরু হবে। তবে এর মধ্যে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ শেষ না হলে সে পর্যন্ত কোচ থাকবেন লোপেজ।’

বুধবার থেকেই গুঞ্জন চলছিল যে ডাচ কোচ লোডভিক ডি ক্রুইফকে এবার সত্যি সত্যিই বিদায় জানানো হচ্ছে। আর তার স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন সাবেক গোলরক্ষক ফ্যাবিও লোপেজ। বুধবার বাফুফে ভবনে লোপেজ উপস্থিত হয়েছিলেন। পরে এদিন রাতে ডিনারে ক্রুইফকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায়বার্তা জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। বৃহস্পতিবার সকালে ক্রুইফ নিজ দেশে ফিরে গেছেন। তাই লোপেজের নিয়োগের ঘোষণা ছিল তখন সময়ের ব্যাপার। বৃহস্পতিবার বিকেলে বাফুফের কার্যনির্বাহী সদস্যদের সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে লোপেজের নিয়োগের বিষয়টি চূড়ান্ত হয়েছে। পরে সাংবাদিকদের এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন বাফুফে সহ-সভাপতি তাবিথ আউয়াল।

সহকারী কোচ কোস্তানটিনো জোক্কারিনি ও ফিটনেস কোচ অ্যাঞ্জেলো পাভিয়াও আসছেন ইতালি থেকে। তাদের আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর ঢাকায় আসার কথা রয়েছে। এ ছাড়া গোলরক্ষক কোচ ক্রিশ্চিয়ান শোয়েচলার ও স্থানীয় কোচ সাইফুল বারী টিটুও নিজ দায়িত্বে থাকছেন। তাই সব মিলিয়ে জাতীয় দলের কোচিং স্টাফ সংখ্যা দাঁড়াচ্ছে ৫ জন।

নতুন কোচ আপাতত ঢাকা ক্লাবে থাকছেন। বাকি দুই সহকারী ঢাকায় আসার পর ১৫ সেপ্টেম্বর শুরু হবে জাতীয় দলের ক্যাম্প। আগামী ১৩ অক্টোবর কিরগিজস্তানের বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে অ্যাওয়ে ম্যাচকে সামনে রেখেই এই ক্যাম্প শুরু হবে। এক সপ্তাহ ক্যাম্প চলবে। এর মধ্যে ঢাকায় অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ক্যাম্পও চলমান থাকবে। এ দুটি ক্যাম্প থেকে আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর ২৫ জনের দল চূড়ান্ত করবেন কোচ। সেখান থেকেই ২৩ জনের চূড়ান্ত দল নিয়ে রওনা হবেন কিরগিজস্তারে রাজধানী বিশকেকের উদ্দেশে।

নতুন এই কোচিং স্টাফের বেতন কত হবে সে সম্পর্কে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানাতে চাননি তাবিথ আউয়াল। তবে বাফুফে সূত্রে জানা গেছে, তিন কোচকে মাসিক ১৫ হাজার ডলার বেতন প্রদান করা হবে। এ ছাড়া তাদের বাসস্থান-পরিবহনসহ অন্যান্য সুবিধা বাফুফে প্রদান করবে।

নতুন কোচের অধীনে বাংলাদেশ দল খেলায় উন্নতি করবে বলে আশা করেছেন তাবিথ আউয়াল। তিনি বলেছেন, ‘কোচরা জাতীয় দলকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার পাশাপাশি নতুন প্রতিভাও অন্বেষণ করবেন। আগে আমাদের দলে ডাচ কোচ ছিলেন। এখন আসছেন ইতালিয়ান কোচ। দুজনই ইউরোপিয়ান। তাই কৌশলগত দিক থেকে খুব বেশি পার্থক্য হবে বলে মনে হয় না। তবে যেহেতু আমাদের খেলোয়াড়রাই খেলবেন; তাই তাদের দক্ষতা, ফিটনেস ও কৌশলগত জ্ঞান বিবেচনায় নিয়েই তিনি নিজ কাজের ধরন নির্ধারণ করবেন।’

উল্লেখ্য, লোপেজের খেলোয়াড়ী জীবন খুব বেশি উজ্জ্বল নয়। কেননা, হাঁটুর ইনিজুরির কারণে তার খেলোয়াড়ী জীবনের অকাল সমাপ্তি ঘটেছিল। ইতালির জাতীয় দলে খেলা হয়নি তার। খেলেছেন ক্লাব লেভেলে। তবে কোচ হিসেবে এর মধ্যে বেশ সুনাম কুড়িয়েছেন তিনি।

শেয়ার করুন