জাল নোট ঠেকাতে তৎপর বাংলাদেশ ব্যাংক

প্রকাশিত

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : পবিত্র ঈদুল আযহা সামনে রেখে সক্রিয় জাল নোট চক্রের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ব্যাংক তৎপর রয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর নাজনীন সুলতানা। তিনি বলেন, জাল টাকা সরবরাহকারীরা যাতে সক্রিয় না হতে পারে- সে ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

ডেপুটি গভর্নর নাজনীন সুলতানা বলেন, জাল নোট প্রতিরোধে পশুর হাটগুলোকে কেন্দ্র করে সব ধরনের সতর্কমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে ঢাকা সিটি করপোরেশনের চিহ্নিত হাটগুলোতে এই ব্যবস্থা শক্তিশালী করা হয়েছে। আইন প্রয়োগকারী ও গোয়েন্দা সংস্থাকে তাদের কার্যক্রম জোরদার করার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৭টি ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১০ হাটসহ আরও ২টি হাটে (শনির আকড়া ও শ্যামপুর হাট) সেবা প্রদানের জন্য ৩৯টি ব্যাংককে এই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। যারা পশুর হাট শুরুর দিন থেকে ঈদের আগের রাত পর্যন্ত এই সেবা প্রদান করবেন। আর সেবা প্রদানকারী ব্যাংকগুলোকে সরাসরি মনিটরিং করবে বাংলাদেশ ব্যাংক।

জাল নোট প্রতিরোধে ঢাকার বাইরের জেলাগুলোতে যেখানে বাংলাদেশ ব্যাংকের শাখা রয়েছে; সেখানে বাংলাদেশ ব্যাংক ও যেখানে শাখা নেই সেখানে সোনালী ব্যাংক শাখা জেলা প্রশাসকের সঙ্গে আলোচনা করে দায়িত্ব পালন করবে বলে জানান তিনি।

আসল নোটের নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য সম্বলিত ভিডিও চিত্রটি টিভি মিডিয়ায় প্রচারের জন্য অ্যাকটও কে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়ার জন্য তথ্য মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানানো হয়েছে। এছাড়া জনবহুল স্থান, তফসিলী ব্যাংকের শাখায় শাখায় প্রচারের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ইতোমধ্যে পশুর হাটের নিকটবর্তী ব্যাংক শাখাসমুহকে ব্যাংকিং লেনদেনের সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয়েছে। আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসমুহকে জাল নোট সনাক্তকারী মেশিন সরবরাহ করা হয়েছে। এই পর্যন্ত মোট ৪৫০টি জালনোট সরবরাহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকাতে ১৭০টি ও ঢাকার বাইরে ২৮০টি মেশিন সরবরাহ করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ব্যাংকের নিবার্হী পরিচালক শুভংকর শাহা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন