ট্রেনে স্বস্তিতে রাজধানীতে ফিরছেন মানুষ

প্রকাশিত

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঈদের ছুটি শেষ হয়েছে। রোববার থেকে খুলেছে ব্যাংক, বিমা, অফিস-আদালত। কিন্তু এখনো পুরোপরি কর্মব্যস্ত হয়নি রাজধানী ঢাকা। তবে নাড়ির টানে বাড়ি ফেরা মানুষ প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদ উদযাপন শেষে আসছেন কর্মব্যস্ত নগরী ঢাকায়।

কমলাপুর স্টেশনে গিয়ে দেখা গেছে, রোববার ভোর থেকেই ট্রেনে রাজধানীতে ফিরে আসছেন কর্মজীবী মানুষ। দু-একটি ট্রেন ছাড়া অধিকাংশ ট্রেন নির্দিষ্ট সময়ে স্টেশনে আসায় যাত্রীদের মাঝে ছিল স্বস্তি। তবে এখনো তেমন ভিড় নেই। আগামীকাল বা পরশু (সোমবার/মঙ্গলবার) থেকে যাত্রী চাপ বাড়বে এবং পরবর্তী দিনগুলোতেও ট্রেন সময়মতো যাতায়াত করবে -এমনটাই প্রত্যাশা করেছেন রেল কর্তৃপক্ষ।

এ প্রসঙ্গে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ম্যানেজার সিতাংশু চক্রবর্তী জাগো নিউজকে বলেন, ঈদের তৃতীয় দিনও (রোববার) ট্রেনের শিডিউলে বিপর্যয় হয়নি। ট্রেন যথা সময়ে ঢাকা এসে পৌঁছাচ্ছে। যাত্রীদের সুবিধার্থে বেশিভাগ ট্রেনে অতিরিক্ত বগি লাগানো হয়েছে।

তিনি আরো জানায়, ঈদের তৃতীয় দিন (রোববার) সকালেই সারাদেশ থেকে ট্রেনে করে ঢাকায় ফিরতে শুরু করেছে সর্বস্তরের মানুষ। ভোর সাড়ে ৪টা থেকেই রাজধানীর এয়ারপোর্ট ও কমলাপুর রেলস্টেশনে এসে পৌঁছাচ্ছে নিয়মিত ট্রেন সার্ভিসগুলো। একইভাবে বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত সারাদেশ থেকে ট্রেন আসবে। আজও (রোববার) ঈদ উপলক্ষ্যে তিনটি স্পেশাল ট্রেন ঢাকা থেকে বিভিন্ন স্থানে যাওয়া আসা করছে।

এদিকে জীবনের ঝুঁকি এড়াতে যাত্রীদের ট্রেনের ছাদে না উঠার পরামর্শ দিয়েছেন এই স্টেশন ম্যানেজার।

বিলম্বে ট্রেন ছাড়ার অভিযোগ সম্পর্কে সিতাংশু চক্রবর্তী বলেন, দুই-একটি ট্রেন ১০ থেকে ২০ মিনিট বিলম্বে ছেড়েছে। ঈদের সময় এটি খুব একটা বিলম্ব না। তবে বাকি সবগুলো সঠিক নিয়মে চলেছে। এছাড়া রেলের সার্বিক ব্যবস্থাপনা স্বাভাবিক রয়েছে।

তারাকান্দি থেকে আসা যাত্রী জাহেদুল ইসলাম জানান, সঠিক সময় ছাড়ায় ঢাকায় পৌঁছেতে বেশি সমস্যা হয়নি। তবে ট্রেনে ভিড় ছিল, অনেকে দাঁড়িয়ে এসেছে। ঈদের সময় ভিড় থাকবে এটা স্বাভাবিক। রাস্তার যানজট-ভোগান্তি এড়িয়ে ট্রেনে ঢাকায় আসা অনেক ভালো।

রাজশাহী থেকে আসা রাজশাহী এক্সপ্রেসের যাত্রী জয়নাল আবেদীন জানান, ঈদের ছুটিতে রাজশাহী গ্রামের বাড়ি গিয়েছিলাম। আসার টিকিট পেতে সমস্যা হয়েছিল। ট্রেন ঢাকা আসতে ১ ঘণ্টা বেশি সময় লেগেছে। এছাড়া ভিড় থাকায় ব্যাগ-মালামাল নিয়ে আসা একটু সমস্যা হয়েছে। তবে ঈদের সময় একটু ভিড় থাকেই।

শেয়ার করুন