প্রতিবন্ধীদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট টুর্নামেন্ট উদ্বোধন

প্রকাশিত

ক্রীড়া প্রতিবেদক : শারীরিক প্রতিবন্ধীদের নিয়ে ৫ জাতির আন্তর্জাতিক টোয়েন্টি২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট উদ্বোধন করা হয়েছে। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের প্রেস কনফারেন্স রুমে বুধবার সকাল ১১টার দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ টুর্নামেন্ট উদ্ধোধন ঘোষণা করেন।

এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদার, উপমন্ত্রী আরিফ খান জয়, বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ও আইসিআরসির বাংলাদেশ শাখার প্রধান ক্রিস্টিন চিপোলা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে তার বক্তব্য শুরু করেন। শারীরিক প্রতিবন্ধীদের নিয়ে এমন টুর্নামেন্ট আয়োজন করায় আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘শারীরিক প্রতিবন্ধীদের নিয়ে এমন টুর্নামেন্ট হওযায় আমি খুশি। আমার বিশ্বাস এ টুর্নামেন্টে তারা স্মরণীয় কিছু করবে। প্রতিবন্ধী হওয়াটা কোনো বাঁধা নয়; এটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিতে হবে। শারীরিকভাবে কোনো প্রতিবন্ধকতা থাকলেই তাকে সমাজ থেকে বিচ্যুতি করা যাবে না। আমি দেশের মানুষকে অনুরোধ করব, কোনো প্রতিবন্ধীকে কেউ অবহেলা করবেন না, তাদের সুযোগ তৈরি করে দেবেন। তারা সুযোগ পেলে তাদের যোগ্যতার প্রমাণ দিতে পারে। আমরা প্রতিবন্ধীদের নিয়ে এরই মধ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি; কীভাবে তাদের জন্য আরও সুযোগ সৃষ্টি করা যায়।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বৃষ্টির কারণে জাকজমকভাবে এ টুর্নামেন্ট উদ্বোধন করা সম্ভব হয়নি। প্রকৃতির ওপর তো কারো হাত নেই। এটাই শেষ নয়, ভবিষ্যতে প্রতিবন্ধীদের নিয়ে আমরা আরও টুর্নামেন্ট আয়োজন করব।’

আইসিআরসির বাংলাদেশ শাখার প্রধান ক্রিস্টিন চিপোলা বলেন, ‘টুর্নামেন্টের সঙ্গে সম্পৃক্ত সবাইকে ধন্যবাদ। প্রতিবন্ধীরা কখনই সমাজের জন্য নিগৃত হতে পারে না। এ টুর্নামেন্টের মাধ্যমে প্রতিবন্ধীরা নিজেদের আরও একবার প্রমাণ করতে পারবে। এমন আয়োজন কেবল শুরু; ভবিষ্যতে আরও অনেক কিছু করতে চাই।’

তিনি বলেন, ‘এ টুর্নামেন্ট সবার কাছে প্রতিবন্ধীদের বিজয়ের বার্তা পৌঁছে দিবে। সবাইকে জানিয়ে দিবে যে প্রতিবন্ধীরাও সমাজের মূলস্রোতের সঙ্গে মিশে যেতে পারে। বাংলাদেশ জাতীয় দলের অধিনায়ক মাশরাফিকে ধন্যবাদ এ টুর্নামেন্টের ব্র্যান্ড এ্যাম্বাসেডর হওয়ার জন্য।’

উদ্বোধনের পরই স্বাগতিক বাংলাদেশের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের মাঠে নামার কথা। কিন্তু বৃষ্টির কারণে উদ্বোধনী ম্যাচটি পরিত্যক্ত হওয়ার আশঙ্কাই প্রকট। কেননা মিরপুরের আকাশে এখনও বৃষ্টি ঝড়ছে।

বাংলাদেশ ছাড়া এ টুর্নামেন্টের বাকি ৪টি দল হলো- ইংল্যান্ড, ভারত, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান। টুর্নামেন্টের বাকি ম্যাচগুলো বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে (বিকেএসপি) অনুষ্ঠিত হবে।

শেয়ার করুন