বঙ্গবাজার মার্কেট বন্ধ করল পুলিশ

প্রকাশিত

মুক্তমন ডেস্ক : করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সতর্কতামূলক পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না নেওয়ায় পুলিশ আজ রাজধানীর বঙ্গবাজার মার্কেট এবং ধানমন্ডিতে দুটি কাপড়ের দোকান বন্ধ করে দিয়েছে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত ডেপুটি কমিশনার (রমনা জোন) এইচ এম এম আজিমুল হক আজ গণমাধ্যমকে মঙ্গলবার এ কথা জানিয়েছেন।

তিনি জানান, গুলিস্তানের বঙ্গবাজার আজ দুপুর ১২টা থেকে বন্ধ করা হয়েছে। ‘মার্কেটের ভেতরে জায়গা খুবই কম। এই পরিস্থিতিতে, এখানকার দোকানগুলো চালু রাখার মতো পরিবেশ নেই। এই মার্কেটে স্বাস্থ্য সুরক্ষার কোনো ব্যবস্থাও নেওয়া হয়নি।’

অন্যদিকে ধানমন্ডি জোনের এডিসি আবদুল্লাহিল কাফি জানান, ওই এলাকার ফ্যাশন ব্র্যান্ড ‘অরণ্য’ ও ‘ভাইভ’-এর দুটি আউটলেট বন্ধ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘ওই দোকান দুটোতে জীবাণুনাশী টানেল বা স্প্রে গেট ছিল না। এছাড়া, সেখানে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থাও যথেষ্ট মনে হয়নি।’

তবে, স্বাস্থ্য সুরক্ষার ব্যবস্থা নিশ্চিত করে ওই দোকানগুলো খোলা যাবে বলে তিনি জানান।

সরকার ঈদ উপলক্ষে আগে সীমিত পর্যায়ে ১০ মে থেকে শপিংমল, সব ধরনের দোকান ও অন্যান্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলার অনুমতি দিয়েছে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত দোকান ও মার্কেট খোলা রাখা যাবে।

তবে ঢাকার সবচেয়ে বড় দুটি বিপণি বিতান বসুন্ধরা সিটি এবং যমুনা ফিউচার পার্কসহ ঢাকা, চট্টগ্রাম ও অন্যান্য শহরগুলোর বহু শপিংমল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ঈদের আগে চালু না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ মহামারি চলাকালীন শপিংমল ও মার্কেট চালু রাখার জন্য ৭ মে নগরবাসীর জন্য ১২টি নির্দেশনা দিয়েছে। প্রতিটি শপিংমলের প্রবেশপথে জীবাণুনাশক টানেল বা চেম্বার স্থাপন এবং ক্রেতাদের শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা করতে থার্মাল স্ক্যানার বসাতে বলেছে।

ডিএমপির অন্যান্য নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে, মাস্ক ছাড়া মার্কেটে প্রবেশ না করা, স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনা অনুসরণ করার গুরুত্ব তুলে ধরে ব্যানার টাঙ্গানো ইত্যাদি।

শেয়ার করুন