বাংলাদেশের স্বপ্নভঙ্গ

প্রকাশিত

ক্রীড়া প্রতিবেদক : উজবেকিস্তানের কাছে হেরে অনূর্ধ্ব-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপ বাছাইপর্বেই শেষ বাংলাদেশের পথচলা । মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে উজবেকিস্তানের সঙ্গে ৪-০ গোলে হেরেছে সাইফুল বারী টিটুর শিষ্যরা। এ হারের ফলে বাংলাদেশ চার পয়েন্ট নিয়ে ‘এ’ গ্রুপে রানার্স-আপ হলো। আর গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবে উজবেকিস্তান পৌঁছে গেল চুড়ান্ত পর্বে।

খেলার প্রথম মিনিটেই বাংলাদেশের বুক কাঁপিয়ে দিয়েছিল উজবেকিস্তান।  গানজোনভ বেগজোদ মাঝ মাঠ থেকে  বল নিয়ে একাই ঢুকে পড়েন বাংলাদেশ শিবিরে। বক্সের ওপর থেকে নেন জোরালো ডান পায়ের শট। বল ক্রসবার কাঁপিয়ে মাঠে ফেরত আসে।

তবে দ্বিতীয় মিনিটেই গোলের দেখা পায় উজবেকরা। সম্মিল্লিত আক্রমণ থেকে বাংলাদেশ গোলমুখে সৃষ্টি হয় জটলা। ফরোয়ার্ড দসতোন ইবরাগিমভ দাঁড়িয়ে ছিলেন অরক্ষিত অবস্থায়। ঊর্ধ্বমুখী শটে তিনি বল জাল জড়িয়ে দেন।

এরপর বাংলাদেশ রক্ষণাত্মক কৌশল অবলম্বন করে খেলে। লক্ষ্য ছিল দ্রুত গতির পাল্টা আক্রমণে গোল করা। এতে সাফল্য আসেনি । প্রথমার্ধের শেষ মিনিটে এমন একটি পাল্টা আক্রমণ থেকে কর্নার আদায় করে নিয়েছিল বাংলাদেশ। বাম প্রান্ত থেকে বল ভাসিয়ে দিয়েছিলেন মো. ইব্রাহিম। ডি বক্সের ওপর হেড করতে লাফিয়ে ওঠা মাশুক মিয়া জনি বলের ফ্লাইট মিস করেন। উজবেক গোলরক্ষক তখন ছিলেন দূরের পোস্টে। ফাঁকা ছিল জনির সামনে পোস্ট।

বাংলাদেশ সমতা আনার সুযোগ পেয়েছিল ৬০ মিনিটে। মো. ইব্রাহিম বাম প্রান্ত দিয়ে দৌড়ে এসে পড়েছিলেন উজবেক পোস্টের একদম কাছে। বাম পায়ের শট নিতে পারতেন তিনি, কিন্তু দেরি করে ফেলায় উজবেক ডিফেন্ডাররা পজিশনে ফিরে আসেন,  আর ইব্রাহিম হারান বলের নিয়ন্ত্রণ।

৬২ মিনিটে সেই পাল্টা আক্রমণেই দ্বিতীয় গোল আদায় করে নেয় উজবেকিস্তান। দ্রুত গতিতে বল নিয়ে বাংলাদেশ রক্ষণভাগকে পরাস্ত করেন ইবরাগিমব। আর তার পাস থেকে বল প্লেস করে গোল করেন কদিরকুলভ সানজার।

৮০ মিনিটে তৃতীয় গোল হজম করে বাংলাদেশ। বদলি ফরোয়ার্ড অবদিকলিখভ ববির ক্ষীপ্রগতির কাছে হার মানেন ডিফেন্ডার টুটুল হোসেন বাদশা। বাম পায়ের প্লেসিং শট ঠাঁই নেয় মাঝ জালে।

তিন মিনিট অতিরিক্ত সময় যোগ করেছিলেন রেফারি। সেটির শেষ মিনিটে চতুর্থ গোলটি করেন শুকরভ নুরুল্লোয়েভ।

শেয়ার করুন