যমুনা সেতু ব্যবহারের অনুরোধ ফেরি কর্তৃপক্ষের

প্রকাশিত

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি : পদ্মা নদীর প্রবল স্রোতে বিপর্যস্ত হয়ে পরেছে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া রুটের ফেরি সার্ভিস। ফলে দেশের দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার পরিবহন চলাচলে স্থবিরতা নেমে এসেছে। পার হতে না পেরে কয়েক হাজার পণ্যবাহী ট্রাক আটকে রয়েছে পাটুরিয়া ও দৌলতদিয়া ঘাট সংলগ্ন রাস্তায়।

পরিস্থিতি নাজুক আকার ধারণ করায় ফেরি কর্তৃপক্ষ পরিবহন মালিকদের যমুনা সেতু ব্যবহারের অনুরোধ জানিয়েছে। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্পোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা আঞ্চলিক অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার শেখ মোহাম্মদ নাসিম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

ফেরি কর্তৃপক্ষ ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে,পদ্মা নদীর পানি বৃদ্ধির ফলে নদীতে প্রবল স্রোত দেখা দেওয়ায় পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া রুটে চলাচলকারী ফেরিগুলো স্বাভাবিক গতিতে চলতে পারছে না।

ফেরি সেক্টরের নির্বাহী প্রকৌশলী এনামুল হক অপু জানান, প্রবল স্রোতে ফেরিগুলো চলাচল করতে গিয়ে বার বার বিকল হয়ে যাচ্ছে এবং মেরামতে পাঠাতে হচ্ছে। এই রুটে স্রোতের গতি বেগ কোথাও ৬ নটিক্যাল মাইল আবার কোথাও ৭ নটিক্যাল মাইল। এতে ফেরির ইঞ্জিন ক্ষয় হয়।

তিনি আরও জানান, ৯টি রো-রো ফেরি’র মধ্যে বর্তমানে চলছে ছয়টি। আর ইউটিলিটি ছয়টির মধ্যে চলছে তিনটি এবং তিনটি কে-টাইপ ফেরি’র মধ্যে চলছে দুইটি।

২৩ আগস্টে আসা পণ্যবাহী ট্রাকগুলো মঙ্গলবার নাগাদ পারাপার শুরু হয়েছে। এছাড়া যাত্রীবাহী বাসগুলো গড়ে ৬ থেকে ৭ ঘণ্টা ঘাট এলাকায় আটকে থাকার পর পার হতে পারছে।

মঙ্গলবার সরেজমিন পাটুরিয়া ঘাটে গিয়ে ৫ কিলোমিটার যানজট দেখা গেছে। তবে পুলিশের তৎপরতায় ঘাটের ভিতরে কোনও বিশৃঙ্খলা দেখা যায়নি।

শেয়ার করুন