শিগগিরই আসছে পুরুষদের পিল!

প্রকাশিত

ডেস্ক প্রতিবেদন : জন্মনিয়ন্ত্রণে এবার পুরুষদের জন্য আসছে জন্মনিরোধক পিল। এরকমই দুটি পিলের কথা জানিয়েছেন গবেষকরা। পিল দুটি হচ্ছে সাইক্লোসপরিন (সিএসএ) ও ট্যাকরোলিমাস (এফকে ৫০৬); যা শুক্রাণুকে দুর্বল ও নিষ্ক্রিয় করে ফেলবে।

প্রতিবেদেন বলা হয়, সম্প্রতি সায়েন্স জার্নালে এ নিয়ে একটি গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে। গবেষণাটি করেছেন জাপানের ওসাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাইক্রোবিয়াল ডিজিজ ইনস্টিটিউটের গবেষক হারুহিকো মিয়াতা ও তার সহযোগিরা। গবেষকরা ইঁদুরের ওপর এই গবেষণা পরিচালনা করেন।

গবেষণাটি তিন ধাপে করা হয়। প্রথম ধাপে এমন একটি ইঁদুরের জন্ম দেওয়া হয়; যার শরীরে কোনো পিপিপি৩সিসি নেই। এমনকি সেটির দেহে প্রোটিনও তৈরি হয় না। তার সঙ্গে একটি মেয়ে ইঁদুরের মিলন ঘটানো হয়। তাতে দেখা যায়; সেটি গর্ভবতী হয়নি।

গবেষণার দ্বিতীয় ধাপে একটি স্বাভাবিক পুরুষ ইঁদুরকে পিল দুটির যেকোনোটি দুই সপ্তাহ খাওয়ানো হয়। এর ফলে ইঁদুরটি অনুর্বর হয়ে যায়।

গবেষণার তৃতীয় ধাপে এফকে ৫০৬ পিলটি পরপর চারদিন এবং সিএসএ পরপর পাঁচদিন খাওয়ালে একই ফল পাওয়া যায়। আবার এক সপ্তাহ ওষুধ বন্ধ করলে পুনরায় উর্বরতাশক্তি ফিরে আসে।

গবেষকরা বলেন, পিল দুটি অঙ্গ প্রতিস্থাপন করা রোগিদের জন্য ব্যবহৃত হয়। এতে প্রতিস্থাপন করা নতুন অঙ্গকে রোগির দেহের অন্যান্য অঙ্গ সহজেই গ্রহণ করতে পারে। এসব পিল পুরুষের শুক্রাণুকে নির্জীব করতে সক্ষম। এ পিল দুটি ব্যবহার করলে শুক্রাণু ডিম্বাণুকে আকৃষ্ট করার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলে।

তারা আরও বলেন, পিল দুটি ক্যালসিনিউরিন নামে একটি এনজাইমকে নিষ্ক্রিয় করার মাধ্যমে কাজ করে। আর এ ক্যালসিনিউরিন থাকে শুধু শুক্রাণুতে। এনজাইমটিতে দুটি সুনির্দিষ্ট প্রোটিন রয়েছে, তা হচ্ছে পিপিপি৩সিসি এবং পিপিপি৩আর২।

গবেষকরা বলছেন, মানবদেহেও এটি কার্যকর হতে পারে। সেক্ষেত্রে এ পিল দুটিই হতে পারে পুরুষের জন্মনিরোধ পিল।

শেয়ার করুন