শেষ হলো মার্সেল ক্লাব কাপ উন্মুক্ত শরীর গঠন প্রতিযোগিতা

প্রকাশিত

ক্রীড়া প্রতিবেদক : মার্সেল ক্লাব কাপ উন্মুক্ত শরীর গঠন প্রতিযোগিতা  শেষ হয়েছে সোমবার। এই প্রতিযোগিতায় সারা দেশ থেকে ৮০টি ক্লাবের দুই শতাধিক বডিবিল্ডার অংশ নেন। এবার ৬০, ৬৫, ৭০, ৭৫, ৮০ ও  ৮০+ কেজি দৈহিক ওজন শ্রেণিতে অর্থাৎ মোট ৬টি ইভেন্টে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

৬০ কেজি ওজন শ্রেণিতে মিস্টার মার্সেল হয়েছেন সুমন দাস। দ্বিতীয় হয়েছেন সুজন হোসেন। তৃতীয় হয়েছেন মোহাম্মদ রাজ্জাক।

৬৫ কেজি ওজন শ্রেণিতে মিস্টার মার্সেল হয়েছেন আনোয়ার হোসেন। দ্বিতীয় হয়েছেন মোহাম্মদ রিমন। তৃতীয় হয়েছেন রনজিত চন্দ্র সরকার।

৭০ কেজি ওজন শ্রেণিতে মিস্টার মার্সেল হয়েছেন মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম তালুকদার । দ্বিতীয় হয়েছেন মোহাম্মদ শাহজালাল। তৃতীয় হয়েছেন মোহাম্মদ আল আমিন শরীফ।

৭৫ কেজি ওজন শ্রেণিতে মিস্টার মার্সেল হয়েছেন সাকিব আল হাসান। দ্বিতীয় হয়েছেন মোহাম্মদ সোহেল রানা। তৃতীয় হয়েছেন আসিফ মঈন।

৮০ কেজি ওজন শ্রেণিতে মিস্টার মার্সেল হয়েছেন সুমন দাস। দ্বিতীয় হয়েছেন মোহাম্মদ তানভীর রহমান। তৃতীয় হয়েছেন মোহাম্মদ জামাল হোসেন।

৮০+ কেজি ওজন শ্রেণিতে মিস্টার মার্সেল হয়েছেন রায়হানুর রহমান। দ্বিতীয় হয়েছেন সুব্রত রায়। তৃতীয় হয়েছেন অপূর্ব কুমার রায়।

পুরস্কার বিতরণীয় ও সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও বাংলাদেশ শরীর গঠন ফেডারেশনের সভাপতি মেজর জেনারেল (অব.) মোহাম্মদ সুবিদ আলী ভূঁইয়া। বিশেষ অতিথি ছিলেন ওয়ালটন গ্রুপের ফার্স্ট সিনিয়র এডিশনাল ডিরেক্টর ও বাংলাদেশ শরীর গঠন ফেডারেশনের সহ-সভাপতি এফ.এম. ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন)। আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ শরীরগঠন ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

প্রতিটি ওজন শ্রেণির প্রথম তথা মিস্টার মার্সেল খেতাব অর্জনকারী পান স্বর্ণপদক ও ৬ হাজার টাকার অর্থ পুরস্কার এবং যোগ্যতার ভিত্তিতে মার্সেল ব্র্যান্ডে চাকরির  সুযোগ।

দ্বিতীয়  স্থান অর্জনকারী পান রৌপ্যপদক ও  ৫ হাজার টাকা। তৃতীয় স্থান অর্জনকারী পান তামারপদক ও ৪ হাজার টাকার অর্থ পুরস্কার।

শেয়ার করুন