আড়াই কোটি বাংলাদেশী ধূমপান করে

নিজস্ব প্রতিবেদক : স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছেন, বাংলাদেশে প্রায় ৪৫ শতাংশ পুরুষ ও দুই শতাংশ নারী ধূমপান করে। এর মধ্যে তিন শতাংশ ছেলে ও এক শতাংশ মেয়ে ধূমপানে আসক্ত। সেই হিসেবে প্রতিদিন আড়াই কোটি প্রাপ্তবয়স্ক লোক ধূমপান করেন, যা আমাদের জনস্বাস্থ্যের জন্য ভীষণ হুমকি এবং জাতীয় উন্নতির অন্তরায়।

ধূমপানের ক্ষতিকর দিক সম্পর্কে জনগণকে সচেতন করতে ওয়ার্ল্ড লং ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় সরকার পঞ্চমবারের মতো জাতীয় মিডিয়া ক্যাম্পেইন করতে যাচ্ছে।

বৃস্পতিবার বিকেলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ সব তথ্য তুলে ধরেন প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

জাহিদ মালেক বলেন, ‘২০১৪-১৫ অর্থবছর থেকে সকল তামাকজাত দ্রব্যের উপর এক শতাংশ স্বাস্থ্য উন্নয়ন সারচার্জ আরোপ করা হয়েছে। আর এই আদায়কৃত অর্থ তামাক নিয়ন্ত্রণ ও স্বাস্থ্য উন্নয়নমূলক বিভিন্ন কাজে ব্যয় হবে।’

‘জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ নীতিমালা ও তামাক চাষ নীতিমালার কাজও এগিয়ে চলছে’ বলে উল্লেখ করেন তিনি।

দেশের সকল রেস্তোঁরা ও যানবাহনকে শতভাগ ধূমপানমুক্ত করার জন্য রেস্তোঁরা মালিক সমিতি ও যানবাহন মালিক সমিতিকে নিয়ে কাজ চলছে জানিয়ে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এ সব উদ্যোগ ও কর্মকাণ্ড বাংলাদেশের তামাক নিয়ন্ত্রণের সফল্যের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও মানুষের আচরণ পরিবর্তনে এ ধরনের ক্যাম্পেইনের বিকল্প নেই।’

‘বাংলাদেশে প্রতিবছর ১৪ দশমিক ছয় শতাং পুরুষ ও পাঁচ দশমিক সাত শতাংশ মহিলা তামাক ব্যবহারের কারণে মারা যান। যা আন্যান্য নিম্ন আয়ের দেশের গড় থেকে বেশি। প্রতিবছর স্ট্রোকসহ তামাক ব্যবহারজনিত বিভিন্ন রোগে ৯২ হাজার লোক মারা যায়’ বলেও জানান জাহিদ মালেক।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।