গ্যাসের দাম ফের এক চুলা ৭৫০, দুই চুলা ৮০০ টাকা

ডেস্ক : দ্বিতীয় দফায় গৃহস্থালি গ্যাসের দাম বৃদ্ধিকে অবৈধ ঘোষণা করেছেন হাইকোর্ট। এর ফলে এখন থেকে গ্যাসের দাম প্রথম দফায় যতটুকু বাড়ানো হয়েছিল তাই নেওয়া হবে। অর্থাৎ এক চুলার দাম পড়বে ৭৫০ টাকা আর দুই চুলার দাম ৮০০ টাকা।

আজ বিচারপতি জিনাত আরা ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী, চুলতি জুন থেকে দ্বিতীয় দফায় গ্যাসের দাম বাড়ানোর যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় তা কার্যকর হচ্ছে না। অর্থাৎ গ্রাহকদের আাগামী ১ আগস্ট থেকে এক চুলার জন্য ৯০০ ও দুই চুলার জন্য ৯৫০ টাকা বিল দিতে হবে না।

বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনকে (বিইআরসি) এই আদেশ পত্রিকার বিজ্ঞপ্তি আকারে জনগণকে জানাতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ২৮ ফেব্রুয়ারি এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট রুলসহ দ্বিতীয় দফায় গ্যাসের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেন। এই আদেশ স্থগিত চেয়ে আবেদন করে বিইআরসি। গত ৩০ মে সেই আবেদনের শুনানি নিয়ে চেম্বার বিচারপতি হাইকোর্টের দেওয়া আদেশে স্থগিতাদেশ দিয়ে ৫ জুন আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠান। এর ধারাবাহিকতায় ওই দিন বিষয়টি শুনানির জন্য ওঠে। শুনানি নিয়ে চেম্বার বিচারপতির দেওয়া এই স্থগিতাদেশ বহাল রাখে আপিল বিভাগ। এ ছাড়া গ্যাসের দাম বৃদ্ধি প্রশ্নে হাইকোর্টের দেওয়া রুল ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে বলা হয়।

এর আগে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি বিইআরসি দুই ধাপে গ্যাসের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেয়। এই গণবিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী প্রথম দফায় ১ মার্চ ও দ্বিতীয় দফায় ১ জুন থেকে দাম বাড়ার কথা। বিইআরসির আদেশ অনুযায়ী মার্চ থেকে আবাসিক গ্রাহকদের এক চুলার জন্য ৭৫০ (আগে ৬০০) ও দুই চুলার জন্য ৮০০ টাকা (আগে ৬৫০) বিল দেওয়ার কথা বলা হয়। আর জুন থেকে এক চুলার জন্য ৯০০ ও দুই চুলার জন্য ৯৫০ টাকা বিল দেওয়ার কথা।

ওই গণবিজ্ঞপ্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ক্যাবের কনজুমার কমপ্লেইন হ্যান্ডলিং ন্যাশনাল কমিটির আহ্বায়ক স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন রিট করেন। এই রিটের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট এ রায় দিল।