ইভটিজিং রোধে রমনায় থাকবে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত

প্রতিবেদক : র‌্যাবের মহা পরিচালক বেনজীর আহমেদ বলেছেন, রমনা বটমূলে আগত নারীদের যাতে কেউ ইভটিজিং করতে না পারে সেই লক্ষ্যে সেখানে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদলত থাকবে। যদি কেউ নারীদের ইভটিজিং করে তা হলে সাথে সাথে তাদের সাজা দেয়া হবে।

শুক্রবার সকাল সোয়া ১১টার দিকে রমনা বটমূলে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এমন তথ্য জানান তিনি। এর আগে রমনা বটমূলে পহেলা বৈশাখের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন করেন তিনি।

তিনি বলেন, পহেলা বৈশাখে আকাশ থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করা হবে। যাতে দুষ্কৃতকারীরা কোনো ধরনের নাশকতা না করতে পারে তাই এমন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

বেনজীর আহমেদ বলেন, পহেলা বৈশাখ আমাদের একটি বড় উৎসব। এই উৎসব পালন করার জন্য দেশের সবাই প্রস্তুত। আর এই উৎসবে যাতে কেউ কোনো ধরনের উসকানি না দিতে পারে বা কোনো ধরনের নাশকতা না করতে পারে সেজন্য সারা দেশে র‌্যাবের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, রাজধানীর রমনা বটমূল, ধানমন্ডি লেক, হাতিরঝিলসহ বিভিন্ন জায়গায় বৈশাখী অনুষ্ঠান হবে। আর এসব এলাকায় র‌্যাবের পক্ষ থেকে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

প্রতিবারের মত রমনা বটমূলে র‌্যাবের পক্ষ থেকে একটি কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়েছে জানিয়ে র‌্যাব প্রধান বলেন, পহেলা বৈশাখে সন্ধ্যার পর থেকে হাতিরঝিলে অনেক লোক সমাগম হয়। তাই এবার প্রথমবারের মতো সেখানে র‌্যাবের পক্ষ থেকে একটি কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়েছে। এছাড়াও রমনা বটমূলে বেঞ্চ স্থাপন করা হবে যাতে বৃদ্ধ ও শিশুরা ক্লান্ত হয়ে গেলে সেখানে বসে বিশ্রাম নিতে পারে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে র‌্যাবের ডিজি বলেন, পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে প্রিন্ট, ইলেকন্ট্রনিক্স, অনলাইন মিডিয়া এবং সকল ধরনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। এসব মাধ্যমগুলো ব্যবহার করে যাতে কেউ কোন ধরনের উসকানি না দিতে পারে সে জন্য পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। তবে কেউ যদি এসব মাধ্যম ব্যবহার করে উসকানি দেয় তা হলে তাদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে বলেও জানান তিনি।