অনিশ্চয়তায় স্বাধীনতা কাপ ফুটবল

ক্রীড়া প্রতিবেদক : কথা ছিল মার্চে অনুষ্ঠিত হবে স্বাধীনতা কাপ ফুটবল। কিন্তু বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ, বিশ্বকাপ বাছাই এবং এএফসি অনূর্ধ্ব-২৩ চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাইপর্বের খেলা থাকায় পিছিয়ে দেওয়ো হয়েছিল এই আসর; বলা হয়েছিল, আসরটি অনুষ্ঠিত হবে চলতি বছর অক্টোবরে। তবে এবারও স্বাধীনতা কাপ ফুটবলের মাঠে গড়ানো নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। কারণ, অক্টোবরে একই সময়ে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক কাপ চ্যাম্পিয়নশিপ। ফলে অক্টোবরে নির্ধারিত সময়ে স্বাধীনতা কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট হচ্ছে না; বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) মনোভাবে যেন সেই কথা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে! শনিবার নির্বাহী কমিটির সভা শেষে বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি আবদুস সালাম মুর্শেদীর বক্তব্যে এমন ইঙ্গিতই মিলেছে।

সভায় স্বাধীনতা কাপের আয়োজন ছাড়াও বেশ কিছু বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে জাতীয় দলের প্রধান, সহকারী ও গোলরক্ষক কোচের সময় খণ্ডকালীনভাবে বৃদ্ধি, আগামী মৌসুমে পেশাদার লিগের স্পন্সরশিপ প্রস্তাব, কমলাপুর টার্ফে খেলার প্রস্তুতি, চ্যাম্পিয়নশিপ লিগের সময়সীমা, শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ চ্যাম্পিয়নশিপ, স্বাধীনতা কাপ ও সুপার কাপ, জাতীয় দলের নতুন জার্সি উন্মোচন, অনূর্ধ্ব-১৬ দলের সাফল্যে সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ প্রস্তাব গ্রহণ, লিগের পয়েন্ট টেবিলের আগাম অনুমোদন, সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগের চাকরির মেয়াদ বৃদ্ধিসহ বিগত কয়েকটি টুর্নামেন্টের আয়-ব্যয়ের হিসাব সংক্রান্ত আলোচনা। কার্যনির্বাহী কমিটির সভা শেষে আবদুস সালাম মুর্শেদী সভায় গৃহীত এসব সিদ্ধান্ত তুলে ধরেছেন মিডিয়া কর্মীদের কাছে।

শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ, স্বাধীনতা কাপ ও সুপার কাপ :

বাফুফে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতা কাপ ও সুপার কাপ বাতিলের কথা বলছে না। তবে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে যা বলছে তাতে মনোভাবটা তেমনই প্রকাশ পাচ্ছে। চট্টগ্রাম আবাহনীর আয়োজনে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবল অনুষ্ঠিত হবে ১৭ থেকে ৩০ অক্টেবর। যেখানে ৪টি বিদেশী ক্লাবসহ দেশের আবাহনী লিমিটেড, মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেড, শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাব ও আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনীর অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে। টুর্নামেন্টে অংশ নিবে ভারতের দুই ঐতিহ্যবাহী ক্লাব মোহনবাগান ও ইস্ট বেঙ্গলও। এ ছাড়া নেপাল ও ভুটানের একটি করে ক্লাব খেলবে এই টুর্নামেন্টে।

তাই একই সময়ে স্বাধীনতা কাপ আয়োজন কঠিন জানিয়ে আবদুস সালাম মুর্শেদী বলেছেন, ‘আমাদের ক্যালেন্ডার ঠিক আছে। যেহেতু চট্টগ্রাম আবাহনীর আয়োজনে ৮ দলের টুর্নামেন্ট হচ্ছে চট্টগ্রামে; তাই একই সময়ে স্বাধীনতা কাপ আয়োজন কঠিন। আমাদের ৪টি ক্লাব খেলবে টুর্নামেন্টে। তাদেরও প্রস্তুতির ব্যাপার আছে। তাই শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপকে সুষ্ঠভাবে আয়োজনের দিকেই মনযোগ দেওয়া উচিত। একই সময়ে এই ক্লাবগুলোকে নিয়ে স্বাধীনতা কাপ আয়োজন করা কঠিন হবে। এরপরও আমাদের চেষ্টা থাকবে টুর্নামেন্টটি আয়োজনের। তবে আমাদের বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচসহ আন্তর্জাতিক সূচির বিষয়েও খেয়াল রাখতে হবে।’

জাতীয় দলের প্রধান, সহকারী ও গোলরক্ষক কোচের সময় বৃদ্ধি :

জাতীয় দলের প্রধান কোচ লোডভিক ডি ক্রুইফের মেয়াদ জর্ডানের বিপক্ষে হোম ম্যাচ (৮ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। এ ছাড়া গোলরক্ষক কোচ ক্রিশ্চিয়ান শোয়েচলার ও সহকারী কোচ সাইফুল বারী টিটুর মেয়াদ আগামী ৩ মাসের জন্য বাড়ানো হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে স্থায়ী ভিত্তিতে একজন প্রধান কোচ নিয়োগের চেষ্টা করবে বাফুফে।

আগামী মৌসুমে পেশাদার লিগের স্পন্সরশিপ প্রস্তাব : ২০১৫-১৬ পেশাদার লিগে স্পন্সর হতে বাফুফে যুক্তরাজ্যভিত্তিক প্রতিষ্ঠান সকার লিগ ইন্টারন্যাশনালকে প্রস্তাব দিয়েছিল। লিগ আয়োজনে বাফুফের সঙ্গে অংশীদার হতে প্রতিষ্ঠানটিকে ১ মিলিয়ন পাউন্ড (টাকার অঙ্কে যার পরিমাণ প্রায় ১২ কোটি ২০ লাখ) অর্থের প্রস্তাব করেছে বাফুফে। আবদুস সালাম মুর্শেদী বলেছেন, ‘আমরা লিগে অংশীদার হতে এসএলআইকে ১ মিলিয়ন পাউন্ড অর্থ প্রদানের প্রস্তাব করেছি। যেহেতু আন্তর্জাতিক পর্যায়ের প্রতিষ্ঠান; তাই আমরা একটু বেশী অঙ্কের অর্থের প্রস্তাব দিয়েছি। এই অর্থ পেলে আমরা অবকাঠামোগত উন্নয়নও করতে পারব। বিভাগীয় পর্যায়ে মাঠ তৈরি করে ঢাকার বাইরে বেশী খেলা আয়োজন করতে পারব। এ ছাড়া ক্লাবগুলোকেও আমরা আরও বেশি অর্থ অনুদান দিতে পারব।’

চ্যাম্পিয়নশিপ লিগে খেলবে বাফুফে একাডেমি : কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় ১০ দল নিয়েই চ্যাম্পিয়নশিপ লিগ আয়োজনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। পূর্বের ৯ ক্লাবসহ বাফুফে একাডেমি দল খেলবে এই লিগে। চ্যাম্পিয়নশিপ লিগের জন্য দলবদলের তারিখ নির্ধারিত হয়েছে ১ থেকে ১০ অক্টোবর। আর লিগের খেলা শুরু হবে ২৫ অক্টোবর।

জাতীয় দলের নতুন জার্সি উন্মোচন :

বাংলাদেশ জাতীয় দলের জন্য অফিসিয়ালি নতুন জার্সি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। জাতীয় দলসহ সব ধরনের বয়সভিত্তিক দলে দুই ধরনের জার্সি থাকছে। এর একটি লাল রঙের, অন্যটি সবুজ রঙের।

এ ছাড়া সভায় আগামী ২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কমলাপুর টার্ফে খেলার অনুমোদন পাওয়া যাবে বলে আশা প্রকাশ করা হয়েছে। আরও ৩টি মাঠে টার্ফ বসানোর পরিকল্পনাও নেওয়া হয়েছে। বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগের মেয়াদ আগামী ২৮ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। মহিলা ‍ফুটবলের দেখভাল করতে বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাহউদ্দিনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সাফ অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ে বাফুফে ডেভেলপম্যান্ট কমিটি এবং কোচিং স্টাফসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে অভিনন্দন জানানো হয়েছে। সঙ্গে অনূর্ধ্ব-১৬ দলের ফুটবলারদের আগামী ৪ বছর বাফুফে একাডেমিতে রেখে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ ছাড়া এএফসি কাপে সাফল্যের জন্য শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাবকেও বাফুফের পক্ষ থেকে অভিনন্দন জানানো হয়েছে। অস্ট্রেলিয়াগামী বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দলের জন্য সাফল্য কামনা করা হয়েছে। লিগের পয়েন্ট টেবিলের আগাম অনুমোদন নেওয়া হয়েছে সভা থেকে। বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ও বাফুফে লটারির আর্থিক প্রতিবেদন নিয়ে পর্যালোচনাও হয়েছে সেখানে।