কুমিল্লায় উদ্ধার শেষে রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক

কুমিল্লা প্রতিনিধি : রেলওয়ে কর্মীদের প্রায় সাত ঘণ্টার চেষ্টায় কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ার শশীদল স্টেশনের দক্ষিণ আউটার সিগন্যাল এলাকায় দুর্ঘটনা কবলিত ঢাকাগামী মহানগর গোধূলীর ইঞ্জিন ও বগির উদ্ধার কাজ শেষ হয়েছে। পরে বুধবার ভোর ৫টা ৩৭ মিনিটে চট্টগ্রামের সঙ্গে সারাদেশের ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

কুমিল্লা  রেলওয়ে প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান সেল ফোনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, রাত সোয়া ১টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া থেকে একটি রিলিফ ট্রেন ঘটনাস্থলে পৌঁছার পর উদ্ধার কাজ শুরু হয়। উদ্ধার কাজ শেষ হতে বুধবার ভোর পর্যন্ত সময় লাগে।

এর আগে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ঢাকাগামী মহানগর গোধূলীর ইঞ্জিন ও তিনটি বগি লাইনচ্যুত হয়। এতে চট্টগ্রামের সঙ্গে ঢাকা-সিলেটসহ সারাদেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। বিভিন্ন স্টেশনে আটকা পড়ে ছিল অনেক ট্রেন। দুর্ঘটনায় কেউ হতাহত না হলেও রাতের বেলায় এ দুর্ঘটনার ফলে যাত্রীদের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করে।

দুর্ঘটনার পর থেকে ব্রাহ্মণপাড়া থানার ওসি এসএম বদিউজ্জামানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ যাত্রীদের নিরাপত্তায় ঘটনাস্থলে ঘিরে রাখে। বুধবার বিমানের ফ্লাইট রয়েছে এমন যাত্রীদের পুলিশের উদ্যোগে চারটি মাইক্রোবাস ভাড়া করে ঢাকায় প্রেরণসহ অনেক যাত্রীকে বাসযোগে কুমিল্লা শহরে পৌঁছে দেয়া হয়।

শশীদল স্টেশনের মাস্টার মুজিুবর রহমান জানান, রাত সাড়ে ১০টার দিকে দুর্ঘটনার পর থেকে অনেক যাত্রীই নিজ উদ্যোগে এবং পুলিশের সহায়তায় বিভিন্ন গন্তব্যে চলে গেছেন। তাই ভোর সাড়ে ৫টায় যখন ট্রেনটি স্টেশন ছেড়ে যায় তখন যাত্রী ছিল খুবই কম।