জর্ডানের বিপক্ষেও বড় হার বাংলাদেশের

প্রকাশিত

ক্রীড়া প্রতিবেদক : অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের পর বাংলাদেশ কোচ লোডভিক ডি ক্রুইফ জানিয়েছিলেন, পরিস্থিতির কারণে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে আমরা ওপরে উঠতে পারিনি। ওরা আমাদের প্রবলভাবে চেপে ধরায় তা সম্ভব ছিল না। তবে ঘরের মাঠে আমরা অবশ্যই ওপরে উঠব। দ্রুত আক্রমণে যাব। আশা করছি আমাদের খেলায় উন্নতি দেখা যাবে। কিন্তু হোম কন্ডিশনেও ডাচ কোচের কথা রাখতে পারলেন না নাসির-ইয়ামিন-অপুরা।

মঙ্গলবার ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ২০১৮ সালের রাশিয়া বিশ্বকাপের এশিয়া অঞ্চলের বাছাই পর্বের ম্যাচে জর্ডানের বিপক্ষে ৪-০ গোলে হেরেছে বাংলাদেশ। এর আগে গত বৃহস্পতিবার পার্থে এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৫-০ গোলে হেরেছিল মামুনুল বাহিনী। আর জুনে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে লাল জার্সিধারীরা একটিতে হেরেছিল, অন্যটিতে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে। বাংলাদেশের বিপক্ষে তাজিকিস্তান ১-১ গোলে আটকে গিয়েছিল। আর কিরগিজস্তান জিতেছিল ৩-১ ব্যবধানে।

ঘরের মাঠে খেলার ১৪ মিনিটে পিছিয়ে যায় বাংলাদেশ। স্বাগতিক ডিফেন্ডার মিশু বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে লাফিয়ে উঠলে বল তার কনুইয়ে লাগে। তখন চাইনিজ তাইপের রেফারি ইউ মিন হুন পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়ে দেন। হাতে পাওয়া সুবর্ণ সেই সুযোগ নষ্ট করেননি জর্ডানের অভিজ্ঞ স্ট্রাইকার আবদাল্লাহ সালিম। স্পট কিকে মাথা ঠাণ্ডা রেখে গোল আদায় করেন ২৮ বছর বয়সী ফুটবলার। এরপর সফরকারীদের দ্বিতীয় বার এগিয়ে নেন তরুণ ফুটবলার মোনতাহের আমারা। জটলার মধ্যে বল পেয়ে দূরপাল্লার শটে গোল করেন তিনি। ২-০ ব্যবধানেই বিরতিতে যায় দুদুল।

দ্বিতীয়ার্ধ থেকে ফিরে আবদাল্লাহ সালিম নিজের দ্বিতীয় গোল তুলে নেন। খেলার ৫৬ মিনিটে বাংলাদেশি ডিফেন্ডারদের দুর্বলতায় ছয় গজি বক্সে বল পান দীর্ঘাদেহী ফরোয়ার্ড। আর আলতো ছোঁয়ায় তা স্বাগতিকদের জালে জড়িয়ে দেন। দুই মিনিট বাদে বাংলাদেশের জালে আবারও বল জড়ায়। এবার জর্ডানিজদের উৎসবের কেন্দ্রমনি ইয়াসিন আল বখত। তবে খেলার উল্টো স্রোতে এমিলি-জুয়েল রানারাও বসে থাকেননি। খেলার ১৮ মিনিটে গোল পেতে পারত ক্রুইফের শিষ্যরা। কিন্তু ইয়ামিনের হেডার প্রতিপক্ষের গোলবারে হাওয়া লাগিয়ে চলে যায়। এরপর ৩২ ও ৪২ মিনিটে গোলের সহজ সুযোগ নষ্ট করে তরুণ টাইগার স্ট্রাইকার জুয়েল। বিরতি থেকে ফিরে খেলার ৭৪ মিনিটে কমলের পাস থেকে গোল তুলে নিতে ব্যর্থ হন অভিজ্ঞ এমিলিও।

শেয়ার করুন