পদ্মা সেতুর কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে ভাঙন (ভিডিও)

ডেস্ক প্রতিবেদন : পদ্মার তীব্র স্রোতে নদী ভাঙনের কবলে পড়েছে পদ্মা সেতুর প্রকল্প এলাকা। দু’দফা ভাঙনের কারণে এ এলাকার প্রায় ৩৪০ ফুট এলাকা পানিতে বিলীন হয়ে গেছে। কিন্তু এতে মূল সেতুর কোনো ক্ষতি হবে না বলে জানিয়েছেন সড়ক ও সেতু মন্ত্রী।

অন্যদিকে পানি বিশেষজ্ঞ বলছেন, সেতুর ক্ষতি না হলেও ঝুঁকির মুখে রয়েছে কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডটি।

বস্তা বোঝাই বালু ফেলে ঠেকানো হচ্ছে ভাঙন। রোববার রাত থেকে প্রচণ্ড স্রোতের তোড়ে পদ্মা সেতুর কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডের প্রায় ২শ’ মিটার এলাকা বিলীন হয়ে যায় নদীর বুকে। মঙ্গলবার রাতে দ্বিতীয় দফা ভাঙনের কারণে সেতু নির্মাণের বিপুল সরঞ্জাম এবং কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডের শেড তলিয়ে যায় পদ্মা গর্ভে।

বুধবার থেকে নদী কিছুটা শান্ত হওয়ায় নতুন করে আর ভাঙন দেখা দেয়নি। তবে নদী পুনরায় রুদ্র রূপ ধারণ করলে এর পরিণাম হতে পারে ভয়াবহ। এমনটা মনে করেন সেতু প্রকল্পের পরামর্শক আইনুন নিশাত।

পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের পরামর্শক আইনুন নিশাত বলেন, ‘মাওয়ার পুরো এলাকাতেই পানি অত্যন্ত খরস্রোত অবস্থায় আছে। তাদেরকে বারবার পর্যবেক্ষণ করতে বলা হয়েছে। ভাঙন ঠেকাতে সব ধরনের উপকরণ রাখতে বলা হয়েছে। সেপ্টেম্বরের ১৫ তারিখ পর্যন্ত বিপদ থাকতে পারে।’

নদী ভাঙনে ক্ষতির শিকার হয়নি মূল পাইলিং এর জন্য নির্ধারিত এলাকা। তাই সড়ক ও সেতুমন্ত্রী আশাবাদী অক্টোবরেই শুরু হবে সেতুর পাইলিং অর্থাৎ খুঁটি গাড়ার কাজ।