ফেনীতে ৮ মাসে ৯০টি আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেফতার ৭৬

ফেনী প্রতিনিধি : ফেনীজুড়ে বাড়ছেই সন্ত্রাসী তৎপরতা। রাজনৈতিক নেতাদের পৃষ্ঠপোষকতা আর আইনের ফাঁক গলিয়ে সহজেই জামিন পাওয়ার সুযোগ নিয়ে একদল অপরাধী বারবার অপরাধমূলক তৎপরতায় জড়িত থাকায় জেলাজুড়ে বাড়ছে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড। গত ৮ মাসে এ জেলা থেকে ৯০টি আগ্নেয়াস্ত্রসহ ৭৬ ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ, র‌্যাবসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে ওই সময়কালে দায়ের হয়েছে ৪২টি মামলা। তারপরও থামছে না অবৈধ অস্ত্রধারীদের তৎপরতা। ফেনীর সাধারণ মানুষ এসব ঘটনায় উদ্বিগ্ন ও উৎকণ্ঠিত।

পুলিশসহ স্থানীয়রা মনে করছে, গ্রেফতারকৃত অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা মামলার ফাঁক-ফোঁকরের দিয়ে সহজেই জামিনে বের হয়ে যাচ্ছে। বের হয়েই তারা আবারও জড়িয়ে পড়ছে হত্যা ডাকাতি, অপহরণ, ছিনতাইসহ নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে। ফলে অস্ত্রধারীদের তৎপরতা বন্ধ করা যাচ্ছে না ।

ভুক্তভোগীরা জানায়, ফেনীর উপকুলীয় এলাকা সোনাগাজীর চরাঞ্চলে অবৈধ অস্ত্র নিয়ে জলদস্যুদের মহড়া নিত্য-নৈমত্তিক ব্যাপার। তাদের কাছে জিম্মি ওই এলাকার হাজার হাজার মানুষ। দুর্গম এলাকা হওয়ায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনী সেখানে সময় মতো পৌঁছাতে পারে না। আর যখন পৌঁছে তখন জলদস্যুরা অন্য জায়গায় চলে যায়।

স্থানীয় পেশাজীবী নেতাদের সঙ্গে আলাপকালে তারা জানান, এসব অস্ত্র উদ্ধারে প্রশাসন আরও কঠোর না হলে ফেনীর মানুষের জানমাল ও নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়বে।

সম্প্রতি পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়া দু্’ সন্ত্রাসী। ফাইল ফটো।

জানা গেছে, চলতি বছরের প্রথম আট মাসে এ জেলায় হত্যাকাণ্ড ঘটেছে ২৪টি। আর বেশিরভাগ হত্যাকাণ্ডেই অবৈধ অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে।

অন্যদিকে, গত ৮ মাসে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ফেনীতে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন ধরনের ৯০টি আগ্নেয়াস্ত্রসহ ২ শতাধিক কার্তুজ ও বুলেট উদ্ধার করেছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো গত ৬ জুন র‌্যাব-৭ শহরের লালপোল এলাকায় অভিযান চালিয়ে অত্যাধুনিক দেশি-বিদেশি ৪৫টি বিভিন্ন ধরনের আগ্নেয়াস্ত্রসহ ২৬ জনকে আটক করে। এসব অস্ত্রের মধ্যে স্থানীয় প্রতিনিধিদের লাইসেন্সকৃত অস্ত্রও রয়েছে ।

সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব জানায়, জনপ্রতিনিধিদের বৈধ অস্ত্রগুলো সন্ত্রাসী কাজে ব্যবহারের জন্য কিভাবে অন্যের হাতে গেল তা খতিয়ে দেখা দরকার ।

অপর একটি সূত্র জানায়, বৈধ অস্ত্রগুলো অবৈধ কাজে ব্যবহারের সময় ধরা পড়লেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এখন পর্যন্ত ওই সব অস্ত্রের লাইসেন্স বাতিল করেনি। লাইসেন্সধারীদের ব্যাপারে রহস্যজনক কারণে কোনও ব্যবস্থাও নেয়নি।

এই প্রসঙ্গে জেলা প্রশাসনের এক শীর্ষ কর্মকর্তার কাছে জানতে চাইলে তিনি সুকৌশলে বিষয়টি এড়িয়ে গিয়ে বলেন, ‘সময় হলেই সব জানতে পারবেন।’

আর ফেনীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শামছুল আলম সরকার বলেন, পুলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে জোরালো অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, চলতি মাসে ৬টি পিস্তলসহ এই বছর মোট ৯০টি অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ। আর এসব অবৈধ অস্ত্র ব্যবহারের দায়ে এ পর্যন্ত ৪২ টি মামলা হয়েছে। গ্রেফতার করা হয়েছে ৭৬ জনকে।