বাংলাদেশির দাড়ি ছিড়ে নিল ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ

প্রকাশিত

যশোর প্রতিনিধিঃ মুখে দাড়ি রেখে টুপি পরে ভারতে ভ্রমণের অপরাধে বাংলাদেশে ফেরার সময় আসাদুর রহমান (৩২) নামে এক বাংলাদেশি পাসপোর্টযাত্রীকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার পর দাঁড়ি টেনে ছিড়ে দিয়েছে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ।

শুক্রবার দুপুরে বেনাপোল চেকপোস্টের বিপরীতে ভারতের হরিদাসপুর ইমিগ্রেশন অফিসে এ ঘটনা  ঘটে।

ভুক্তভোগী পাসপোর্টযাত্রী যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলার ফতেপুর গ্রামের আজিত মোল্ল্যার ছেলে আসাদুর কাঁদতে কাঁদতে বেনাপোলে স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, গত ২৭ সেপ্টেম্বর সে পাসপোর্ট বৈধ ভিসা নিয়ে বেনাপোল ইমিগ্রেশন দিয়ে ভারতে প্রবেশ করে। ভারতের কলকাতা, দিল্লি, আজমীর শরীফসহ বিভিন্ন ধর্মীয় স্থান ভ্রমণ শেষে শুক্রবার দুপুর ১২টায় হরিদাসপুর ইমিগ্রেশনে আসে। হরিদাসপুর পুলিশ ইমিগ্রেশনের বহির্গমন বিভাগে পাসপোর্টে সিল লাগানোর জন্য সে লাইনে দাঁড়ায়। এসময় সাদা পোশাকের ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশের কর্মকর্তা পরিচয়ে একজন লোক তাকে কাঁচ ঘেরা পাশের কক্ষে নিয়ে যায়। তাকে বিভিন্ন প্রশ্ন করতে করতে চড় থাপ্পড় মারতে থাকে ওই কর্মকর্তাসহ আরো অনেকে। সে কেন ৬ মাসে ৩ বার ভারতে এসেছে এর কারণ জানতে চান। আবার ভারতে এলে জেলে পাঠানোর ভয়ও দেখানো হয় তাকে। এছাড়া অকথ্য ভাষায় তাকে গালিগালাজ করে ভারতীয় ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ। এক পর্যায়ে তার মুখের দাড়ি টেনে ছিড়ে দিয়েছে তারা।

ভুক্তভোগী আসাদুর রহমান বলেন, আমি বৈধ পাসপোর্ট ও ভিসা নিয়ে ভারতে ভ্রমণে গিয়েছি। বিষয়টি মানবাধিকার লংঘনের সামিল। তিনি মানবাধিকার সংগঠনের মাধমে সরকারের কাছে সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছেন।

শেয়ার করুন