ভারতে হিন্দু কমেছে, বেড়েছে মুসলমান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রতিবেশি দেশ ভারতে হিন্দুদের সংখ্যা কমছে। বাড়ছে মুসলমানের সংখ্যা। দেশটির ২০১১ সালের জনগণনা প্রতিবেদন অনুযায়ী দেখা যায়, ধর্মভিত্তিক জনসংখ্যার বিচারে হিন্দুদের সংখ্যা কমেছে শূন্য দশমিক সাত শতাংশ, সেখানে মুসলিম জনসংখ্যা বেড়েছে শূন্য দশমিক আট শতাংশ।

প্রতিবেদন অনুযায়ী ধর্মভিত্তিক জনসংখ্যার হারে মুসলিম জনসংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ১৭ কোটি ২২ লাখ। ২০০১ সালে যা ছিল ১৩ কোটি আট লাখ। দেশটির মোট জনসংখ্যার ৭৯ দশমিক ৮০ শতাংশ হলো হিন্দু ধর্মাবলম্বী, ১৪ দশমিক দুই শতাংশ মুসলিম, দুই দশকিম তিন শতাংশ খ্রিস্টান, শূন্য দশমিক ৮৪ শতাংশ নাগরিক বৌদ্ধ ও শূন্য দশমিক ৪০ শতাংশ মানুষ জৈন ধর্মাবলম্বী।

হিসেব করে দেখা যাচ্ছে শতাংশের বিচারে জনসংখ্যায় হিন্দুদের সংখ্যা মধ্যে কমেছে শূন্য দশমিক সাত শতাংশ। সেখানে মুসলিম জনসংখ্যা বেড়েছে শূন্য দশমিক আট শতাংশ। শতকরা হিসেবে শিখ, ও বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের সংখ্যাও কমেছে শূন্য দশমিক এক শতাংশ। খ্রিস্টান ও জৈনদের জনসংখ্যায় মোটামুটি একই আছে।

অন্যদিকে জনসংখ্যা বৃদ্ধির হারের নিরিখেও এগিয়ে মুসলমনরাই। ২০০১ থেকে ২০১১- এই দশ বছরের দেশের ১৭ দশমিক সাত শতাংশ জনসংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। তার মধ্যে জনসংখ্যা বৃদ্ধির হারে মুসলিমদের বৃদ্ধির হার ২৪ দশমিক ছয় শতাংশ, হিন্দুদের বৃদ্ধির হার ১৬ দশমিক আট শতাংশ, খ্রিস্টানদের বৃদ্ধির হার ১৫ দশমিক পাঁচ শতাংশ, শিখ আট দশমিক চার শতাংশ, বৌদ্ধ ও জৈন ধর্মের ক্ষেত্রে যথাক্রমে ৬.১ ও ৫.৪ শতাংশ।

২০১১ জনগণনা অনুযায়ী কোন ধর্মের জনসংখ্যা কতো :
হিন্দু : ৯৬ কোটি ৬৩ লাখ (৭৯.৮০ শতাংশ)
মুসলিম : ১৭ কোটি ২২ লাখ (১৪.২ শতাংশ)
খ্রিস্টান : ২ কোটি ৭৮ লাখ (২.৩ শতাংশ)
শিখ : ২ কোটি ৮ লাখ (১.৭ শতাংশ)
বৌদ্ধ : ৮৪ লাখ (০.৭ শতাংশ)
জৈন : ৪৫ লাখ (০.৪ শতাংশ)
অন্যান্য ধর্ম : ৭৯ লাখ (০.৭ শতাংশ)
ধর্মের উল্লেখ করেননি : ২৯ লাখ (০.২ শতাংশ)