মসজিদুল হারামে ক্রেন ভেঙে নিহত ১০৭

প্রকাশিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মুসলমানদের পবিত্রতম স্থান কাবা শরিফ ঘিরে থাকা মসজিদ আল-হারামে একটি ক্রেন ভেঙে পড়ে অন্তত ১০৭ জন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে সৌদি সরকার। এ ছাড়া আহত হয়েছেন আরও ২৩৮ জন।

শুক্রবার সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে প্রচণ্ড ঝড়ো হাওয়া ও ভারি বৃষ্টিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। রাতে সৌদি সিভিল ডিফেন্স টুইটারে এ তথ্য প্রকাশ করে।

রয়টার্স জানিয়েছে, সিভিল ডিফেন্স অথরিটির মহাপরিচালক জেনারেল সুলাইমান আল আমর আল-ইখবারিয়া টেলিভিশনকে ২৩৮জন আহত হওয়ার কথা বলেছেন।

তিনি জানান, আহত ও নিহত সবাইকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। দুর্ঘটনা স্থলে আর হতাহত কেউ নেই। ঝড়ো হাওয়া ও বৃষ্টিতে গাছ উপড়ে গেছে, আঘাত করেছে ক্রেন থাকা এলাকায়ও।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মসজিদুল হারামের চতুর্থ তলায় ক্রেনটি ধসে পড়ে। মসজিদুল হারামের বর্ধিতকরণ গত বছর থেকেই শুরু করেছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। হজের সময় মানুষের স্থান সংকুলান না হওয়ায় মসজিদুল হারাম আরও চার লাখ বর্গমিটার বাড়ানো হচ্ছে। এখানে এক সাথে ২২ লাখ হাজী এখানে নামাজ পড়তে পারবেন।

মক্কায় অবস্থানরত বাংলাদেশ হজ মিশনে কর্মরত অফিসার আহাদ শামিম জানান, নিহতদের মধ্যে কোনো বাংলাদেশী নেই। তবে আহতদের মধ্যে ২৮ জন বাংলাদেশী রয়েছেন। এদের মধ্যে আশঙ্কাজনক কেউ নেই এবং সবাই মক্কার বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

মক্কা-মদীনার মসজিদ কর্তৃপক্ষের একজন মুখপাত্র বিবৃতিতে জানান, ক্রেনটি যেখানে ধসে পড়ে সেখান দিয়ে মুসল্লিরা কাবার চারদিক তাওয়াফ (প্রদক্ষিণ) করে ও হজযাত্রীরা সাফা ও মারওয়া পাহাড়ের মধ্যে সায়ী (হাঁটাচলা) করে।

mecca-accidentসামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া বিভিন্ন ছবিতে মুসল্লিদের রক্তাক্ত দেহ ও ছাদ ভেদ করে ক্রেনের একটি ভগ্নাংশ পড়ে থাকতে দেখা গেছে। মসজিদের পূর্ব অংশে ক্রেনটি ধসে পড়েছে। গত সপ্তাহ থেকে সৌদি আরবের বিভিন্ন স্থানে শক্তিশালী বালু ঝড় বইছে।

কাবা ঘরকে ঘিরে পৃথিবীর সবেচেয়ে বড় এ মসজিদ মুসলমানদের কাছে সবচেয়ে পবিত্র স্থান। সারা পৃথিবীর মানুষ কাবার দিকে মুখ করে নামাজ আদায় করে থাকে।

এদিকে মক্কার গভর্নর খালেদ আল ফয়সাল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়েছেন৷ হারাম শরিফের সম্প্রসারণ প্রকল্পের ম্যানেজার ইঞ্জিনিয়ার বকর বিন লাদেনকে দ্রুত বাদশাহর সামনে হাজির হওয়ার জন্য রাজকীয় আদেশ জারি করা হয়েছে।

সৌদি আরবে চাঁদ দেখা সাপেক্ষে ২২ সেপ্টেম্বর থেকে পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে। প্রতি বছর সারা পৃথিবী থেকে ৩০ থেকে ৪০ লাখ মানুষ মক্কায় হজ পালনের জন্য যায়। বাংলাদেশ থেকে এবার এক লাখ এক হাজার মানুষ হজ পালনের জন্য সৌদি আরব যাওয়ার কথা রয়েছে। হজ মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় সম্মেলন।

https://youtu.be/SqxwoQLpC0A

শেয়ার করুন