শান্তির সেরা পাঁচ শহরে নেই এশিয়া

ডেস্ক প্রতিবেদন : বিশ্বের সেরা শহরগুলো থেকে শান্তিতে বসবাস করার জন্য পাঁচটি শহরকে বেছে নিয়েছে ‘দ্য ইকোনমিস্ট’। সেরা শহর নির্বাচনে সৌন্দর্য, বসবাস উপযোগিতা, আয়তন প্রভৃতি বিষয়ের উপর গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। তবে দুঃখের বিষয় হলো- সেরা পাঁচের এই তালিকায় স্থান পায়নি এশিয়ার একটি শহরও।

মেলবোর্ন
সৌন্দর্যের রাজ্য অস্ট্রেলিয়ার রাজধানী মেলবোর্ন সত্যিই অসাধারণ এক শহর। দ্য ইকোনমিস্ট ব়্যাকিংয়ে ৯৭ দশমিক পাঁচ পয়েন্ট পেয়ে সবার ওপরে রয়েছে মেলবোর্নে নাম। ফেডারেশন স্কয়্যার, রয়্যাল বোটানিকেল গার্ডেন, মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড, ইউরেকা টাওয়ারসহ অনেক কিছুই আছে এই শহরে। এছাড়া এখানকার চিড়িয়াখানাগুলোতেও রয়েছে দেখার মতো সব প্রাণীর সমাবেশ।

ভিয়েনা
র‌্যাংকিংয়ে মেলবোর্নের চেয়ে সামান্য পিছিয়ে রয়েছে ভিয়েনা। অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনা ৯৭ দশমিক ৪ পয়েন্ট পেয়ে ব়্যাকিংয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। হোফবুর্গ, স্প্যানিশ রাইডিং স্কুল, স্টিফেন্স ক্যাথেড্রাল আর শহরের বিখ্যাত সব প্রাসাদ দর্শকদের মন মাতিয়ে দেয়। এছাড়া এ শহরের ক্যাফেগুলোওে অসাধারণ।

ভ্যানকুভার
কানাডার বন্দর নগরী ভ্যানকুভার ব়্যাকিংয়ে পয়েন্টের দিক থেকে এই শহরটিও সেরা শহর মেলবোর্নের খুব কাছাকাছি। ৯৭ দশমিক ৩ পয়েন্ট পেয়ে তৃতীয় হয়েছে ভ্যানকুভার। স্ট্যানলি পার্ক, গ্র্যানভিল দ্বীপ, কিটসিলানো বিচ, গ্রাউস মাউন্টেন, চায়না টাউন, ক্যানাডা প্যালেসের মতো বেশ কিছু নয়নাভিরাম স্থান রয়েছে এ শহরে।

টরন্টো
৯৭ দশমিক ২ পয়েন্ট পেয়ে দ্য ইকোনমিস্ট ব়্যাকিংয়ে রয়েছে ক্যানাডার রাজধানী টরন্টো। ইকোনমিস্টের বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, মেলবোর্ন, ভিয়েনা বা ভ্যানকুভারের চেয়ে টরন্টোও শান্তিতে বসবাসের জন্য কোনো অংশে কম উপযোগী নয়। ন্যাশনাল টাওয়ার, সিটি হল, ইয়ঙ্গে-ডুন্ডাস স্কয়্যার, সেন্ট মাইকেল ক্যাথেড্রালের মতো বেশ কিছু দর্শনীয় জায়গা রয়েচে এ শহরে।

অ্যাডিলেড
অস্ট্রেলিয়ারই আরেক শহর অ্যাডিলেড ৯৬ দশমিক ৬ পয়েন্ট পেয়ে পঞ্চম স্থান পেয়েছে। বিশালতার দিক বিচেনা করে শহরটিকে এ তালিকায় স্থান দেয়া হয়েছে। তবে শুধু আয়তনের জন্যই নয়, সৌন্দর্যের জন্যও শহরটি জনপ্রিয়। এ শহরে রয়েছে আর্ট গ্যালারি অফ সাউথ অস্ট্রেলিয়া, সাউথ অস্ট্রেলিয়া মিউজিয়াম, গ্লেনলেগ গ্রাম, ফেস্টিভ্যাল সেন্টারের মতো মনোমুগ্ধকর অনেক জায়গা।