সত্তরে লা তোমাতিনা, টমেটো যুদ্ধে মাতল স্পেন

ডেস্ক প্রতিবেদন : বিশ্বের সবথেকে বড় ফুড ফাইট স্পেনের লা তোমাতিনা। প্রতি বছর স্পেনের ছোট শহর বুনোলে ১০ হাজার মানুষ একসঙ্গে জড়ো হন লা তোমাতিনা উপলক্ষ্যে। ২৬ অগাস্ট, ২০১৫ সত্তর বছর পূর্ণ করল লা তোমাতিনা ফেস্টিভ্যাল। গুগল ডুডলেও উদযাপিত হল লা তোমাতিনা।

বুনোল শহরে টমেটো চাষ হয় না। কিন্তু লা তোমাতিনা ফেস্টিভ্যালের টিকিটের দাম ওঠানামা করে ১২ থেকে ৭৫ মার্কিন ডলার পর্যন্ত। তবে স্পেনের এই বিখ্যাত উত্সবের শুরু কীভাবে হয়েছিল তা জানেন না অনেকেই। ১৯৯৫ সালে ওয়ার্ল্ড স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত গল্পোই তোমাতিনার ইতিহাস নিয়ে সবথেকে প্রচলিত কাহিনি। মূলত এক ধর্মীয় উত্সব হিসেবেই সূচনা হয় লা তোমাতিনার। সম্ভবত বুনোল শহরের পৃষ্ঠপোষক সাধু সান লুই বার্টনের সম্মানে ১৯৪৪-৪৫ সালে শুরু হয় লা তোমাতিনা। উত্সবের মাঝে হঠাত্ই ঝামেলা শুরু হয়। একদল ছেলে একে অপরকে টমেটো ছুঁড়তে শুরু করে।

অনেকে আবার বলেন দুটি গ্রামের মধ্যে রেষারেষির ফলেই শুরু হয় টমেটো ছোঁড়া। বুনোলের এক অপেশাদার ঐতিহাসিক মিগুয়েল সিয়েরা গালারাজা জানান, ফ্রান্সিস্কো ফ্রাঙ্কো বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে পাদ্রি ও মেয়রকে টমেটো ছুঁড়ে মারে গ্রামের লোকেরা। পঞ্চাশের দশকে বেশ কয়েকবার নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হলেও জনপ্রিয়তার জোরে টিকে যায় লা তোমাতিনা। ধীরে ধীরে তা এখন পালিত হয় টানা দু’সপ্তাহ ধরে।

বুনোল শহর বিখ্যাত ছিল সিমেন্টের জন্য। টমেটো চাষ না হওয়ায় বরাবরাই আমদানি করা টমেটোর ওপরই ভরসা রাখতে হতো এই শহরে। এখনও এই শহর টমেটো চাষের চেষ্টা করলেও লা তোমাতিনা উদযাপনের জন্য পর্যাপ্ত টমেটোর জোগান নেই। ফলে উত্সবের জন্যও আমদানি করতে হয় টমেটো।