সপ্তাহে ৫৫ ঘণ্টার বেশি কাজ, বাড়ে হৃদরোগের আশঙ্কা

‘কাজেই মুক্তি’ এমন উক্তি যাদের আদর্শ, তারা কোনো হিসাব-নিকাশ ছাড়াই দিন-রাত ডুবে থাকেন কাজের মধ্যে। কিন্তু অতিমাত্রার কাজে আর মুক্তি নেই এমনটিই জানিয়েছেন গবেষকরা। সপ্তাহে ৫৫ ঘণ্টার বেশি কাজ করলেই হৃদরোগের আশঙ্কা থাকে।

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের দি ল্যানসেট জার্নালে প্রকাশিত এক সমীক্ষা বলা হয়েছে, সপ্তাহে ৫৫ ঘণ্টা বা তারও বেশি কাজ করলে কার্ডিওভাস্কুলার রোগের আশঙ্কা বেড়ে যায়। ফলে পরিণত বয়সের আগেই হৃদরোগে আক্রান্ত হতে দেখা যায়।

দি ল্যানসেট জার্নালে ওই সমীক্ষাটি করা হয় ৫ লাখ ২৮ হাজারেরও বেশি মহিলা এবং পুরুষের ওপর। সাত বছর ধরে ওই পরীক্ষা চালানো হয়। যারা সপ্তাহে ৪৮ ঘণ্টা কাজ করেন, তাদের এই অসুখের প্রবণতা স্বাভাবিক জীবনযাপন করা লোকেদের থেকে ১০ শতাংশ বেশি। তেমনই হিসেবটা দ্বিগুণেরও বেশি হয়ে যায় সপ্তাহে ৪৯-৫৪ ঘণ্টা কাজ করা কর্মীদের থেকে। তাদের ক্ষেত্রে এই প্রবণতা একলাফে বেড়ে যায় ২৭ শতাংশ। যেখানে ৫৫ ঘণ্টা বা তারও বেশি সময় কাজ করলে সংখ্যাটা দাঁড়ায় ৩৩ শতাংশে।

তবে শুধু কি বেশি কাজের জন্যই এমনটি হয়, না কি এর সাথে খাদ্য অভ্যাসের মতো বিষয়গুলোও তার সঙ্গে সম্পর্কিত সে বিষয়ে এখনও বিস্তারিত জানাননি গবেষকরা।