৫৭ ধারা বাতিল ও প্রবীর সিকদারের মামলা প্রত্যাহার দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক : ‘সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক ৫৭ ধারা আমাদের স্বাধীনতাকে অনর্থক করে দেবে মন্তব্য করে এ ধারা বাতিলের দাবি জানিয়েছেন গণজাগরণ মঞ্চের এক অংশের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার। পাশাপাশি তিনি প্রবীর সিকদারের বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলা প্রত্যাহারেরও দাবি জানিয়েছেন।

৫৭ ধারা বাতিল ও প্রবীর সিকদারের হয়রানিমূলক মামলা প্রত্যাহরের দাবিতে রাজধানীর শাহবাগের জাতীয় জাদুঘরের সামনে শুক্রবার বিকালে গণজাগরণ মঞ্চের ব্যানারে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এসব দাবি জানান।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে পীযূষ সিকদার, ব্লগার ও সাবেক ছাত্রনেতা বাকিবিল্লাহ, ভাস্কর রাশাসহ গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ইমরান এইচ সরকার বলেন, ৫৭ ধারার মত কালো আইন নাগরিক অধিকারকে পাশ কাটিয়ে ফ্যাসিবাদী চিন্তাধারার বহিঃপ্রকাশ ঘটাবে। এটি আমাদের ভিন্নমত পোষণ, মুক্তচিন্তার বহিঃপ্রকাশ সর্বোপরি বাকপ্রকাশের স্বাধীনতাকে হরণ করবে। এই আইন থাকলে কেউ জনবিরোধী সরকারের কোনো সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে কথা বলতে পারবে না। এমনকি গণমাধ্যম প্রকাশের স্বাধীনতাকেও রহিত করবে।

তিনি বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে গণতন্ত্রকে সুসংহত করার জন্য সাধারণ মানুষের জনমতের পক্ষে আইন করা হচ্ছে। পাশের দেশ ভারতেও ৫৭ ধারার মত একটি কালো কানুন ছিল কিন্তু ভারতের সুপ্রীম কোর্ট সেই আইনকে বাতিল করেছে। মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশেও ব্লাসফেমির মত আইন বাতিল করে জনগণের পক্ষে আইন করা হচ্ছে। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও সংবিধান প্রদত্ত বাকস্বাধীনতাকে রহিত করার মত আইন থাকতে পারেনা।

সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ৫৭ ধারার মত গণবিরোধী কালো আইন বাতিল করে মানুষের মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে সুরক্ষা করার চেষ্টা করুন।

প্রবীর সিকদারের মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে ইমরান বলেন, প্রবীর সিকদারকে জামিন দেওয়া হয়েছে কিন্তু তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা এখনও প্রত্যাহার করা হয়নি। সাধারণত আমরা দেখি কারও মামলা প্রত্যাহার করা নাহলে রাষ্ট্রপক্ষ নিজের সুবিধামত সেটি সচল করে তাকে হয়রানি করে থাকে। তাই অবিলম্বে প্রবীর সিকদারের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি।

এসময় তিনি রাষ্ট্রপক্ষের কাছে প্রবীর সিকদারের নিরাপত্তারও দাবি জানান।

প্রবীর সিকদারের বিরুদ্ধ দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে তার ভাই পীযুষ সিকদার বলেন, আমার ভাইকে জামিন দেওয়া হয়েছে কিন্তু আমাদের দাবি অবিলম্বে তার বিরুদ্ধে দায়েকৃত মামলাও প্রত্যাহার করা হোক।