আজ বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ২৮, ২০২১ | ১৪ মাঘ, ১৪২৭

শিরোনাম

ঘিওরের অসহায় জমিলার স্বপ্ন

প্রকাশিত: বুধবার, ডিসেম্বর ৩০, ২০২০


ঘিওরের অসহায় জমিলার স্বপ্ন

আব্দুর রাজ্জাক, ঘিওর (মানিকগঞ্জ) :  মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার বালিয়াখোড়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের অম্লপুর ধূলন্ডী গ্রামের এক হতদরিদ্র নারী জমিনা খাতুন (জমিলা)। পিতা সহিম উদ্দিন আর মা তারা ভানু কন্যার ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে জমিলাকে পাত্রস্থ করেছিলেন ফলসাটিয়া গ্রামের মোহাম্মদ আলীর হাতে।

বছর ঘুরতে না ঘুরতেই জমিলা আর মোহাম্মদ আলীর ঘরে উপস্থিত হয় ছেলে বিশু। নতুন অতিথি আগমনের পর থেকেই স্বামী মোহাম্মদ আলী শুরু করেন টালবাহানা। এক পর্যায়ে মোহাম্মদ আলী জমিলাকে ত্যাগ করে নববধু নিয়ে সুখের সন্ধানে ঘর বাঁধেন অন্য কোন গাঁয়। জমিলা ফিরে আসেন নিজ জন্মস্থান পিতৃগহে।

কারো পৌষ মাস কারো সর্বনাশ। মোহাম্মদ আলীর জীবনে আদৌ পৌষ সংক্রান্তি এসেছিল কিনা সে খবর গ্রামবাসীর জানা না থাকলেও জমিলার জীবনে সেদিন থেকে যে কাল বৈশাখীর ঝড় শুরু হয়েছিল সে অভাব নামক কাল বৈশাখী এখন তাকে আঘাত করে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত।

পিতা মাতার অভাবের সংসারে ছেলে সন্তান নিয়ে তিনি হয়ে পড়েন দিশেহারা। টাকা পয়সা থাক বা না থাক পেটের ক্ষুধা তো থেমে থাকে না। শিশু সন্তানের দুধ আর নিজের পেটের খাবার যোগাতে তিনি লাজ লজ্জা ভুলে বনে বনে লাকড়ি সংগ্রহ, মাটি কাটার কাজ ও প্রতিবেশীদের বাড়িতে ঝি এর কাজ শুরু করেন।

দিন গড়িয়েছে, সময় পাল্টিয়েছে। সেই ছোট্ট ছেলে বিশু আজ চল্লিশোর্ধ বয়স্ক একজন পিতা। স্ত্রী সন্তান নিয়ে সে এখন বসতি গড়েছে তার পিতৃগৃহ ফলসাটিয়া গ্রামে। সময়ের সাথে সাথে সব কিছু পরিবর্তন হলেও পরিবর্তন আসেনি শুধূ জমিলার সংসারে।

তবে জমিলার দৈহিক পরিবর্তন ঘটেছে ব্যাপক। এখন তিনি বয়সের ভারে নুয়ে পড়া ষাটোর্ধ্ব এক বৃদ্ধা। পেটের ক্ষুধা নিবারণের জন্য এখনও ঘন কুয়াশা আর শীত উপেক্ষা করে তাকে কোদাল ঝুঁড়ি হাতে নিয়ে বের হতে হয় কাজের সন্ধানে।  কাজ শেষে সন্ধ্যা বেলা বাড়ি ফিরে রাত্রি যাপনের জন্য তাকে আশ্রয় নিতে হয় ভাইয়ের ঘরে। কারণ দীর্ঘদিন যাবৎ তার নিজের কোন ঘর নেই। নামমাত্র একটি ছাপড়া ঘর ছিল কিন্তু সেটি এখন বসবাসের অনুপযোগী। সামান্য বৃষ্টিতেই গড়িয়ে পড়ে পানি আর ভাঙ্গা বেড়ার ভিতর দিয়ে ঢুকে পড়ে শিয়াল কুকুর।

মোসাঃ জমিনা খাতুন প্রতিবেদককে ক্ষোভ আর বিরক্তির স্বরে বলেন, আমি আর কি কমু ?  আমার স্বামী নাই, ছাওয়াল বিয়া কইর‌্যা অন্য জাগায় থাহে। ছোট কাল থিকা কষ্ট করত্যাছি, এহনও কষ্ট। বাত কাপুড়ের কষ্টতো আচেই, রাইতে থাহারও কষ্ট। বাপের দেওয়া বাড়িতে একটা ছাপড়া ঘর আচে কিন্তু তার মদ্যে এহন আর থ্যাহা যায় না। ব্যাঙ্গেচ্যুইড়ে গেচে। হারাদিন মাটি ক্যাইটা আইস্যা রাইতে বাইয়ের গরে থাহি। হুনচি, যাগো বাড়ি আচে, গর নাই তাগো নাকি সরকার থিকা গর দিবো। মেম্বার চিয়ারম্যানের কাচে একটা গরের জন্যে অনেক গুরচি, কেউ আমারে দয়া করে নাই। এই দুনিয়ায় তেল ওলার মাতায় সবাই তেল দেয়। আমাগো গিরামেই অনেক ম্যানষে সরকারী গর পাইচে য্যাগো সব আচে। আমার বয়সে আমি একটা মাত্র বয়স্ক ভাতা পাইচি। সরকার আর চিয়ারমেন মেম্বারগো কাচে আমার একটাই আবদার আমি একটা সরকারী গর চাই। আমি আর কইদিনই বাঁচুন। শেখ হাসিনার দেওয়া একটা টিনের ঘরের নীচে শুইয়্যা যদি আমি মরতে পারি আমি অনেক শান্তি পামু।

৯নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য হানিফ খান বলেন, আমি মেম্বার থাকাকালীন এ রকম কোন সরকারী ঘর বরাদ্দ ছিল না। আমি যদি আগামীতে নির্বাচিত হতে পারি অবশ্যই জমিলার জন্য একটি সরকারী ঘরের ব্যবস্থা করে দেবো। 

বালিয়াখোড়া ৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি তাপস কুমার বসু তুফান বলেন, জমিলা সহায় সম্বলহীন একজন সাদাসিধা নারী। সে জীবনে অনেক কষ্ট করেছে। এখনও কষ্টের মধ্য দিয়েই বয়ে চলছে। আমি মনে প্রাণে চাই সে একটি সরকারী ঘরের নীচে বাস করুক।

বালিয়াখোড়া ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. আমজাদ হোসেন বলেন, জমিলাকে আমি বয়স্ক ভাতার কার্ড করে দিয়েছি। তবে ঘরের জন্য কোন কাগজপত্র সে আমার কাছে জমা দেয় নাই। আমি তাকে তার ছাপড়ার জন্য কিছু টিন কিনে দিতে চেয়েছি। ইউপি সদস্য আরো বলেন, সরকারী ঘর বরাদ্দের বিষয়ে চেয়ারম্যান  একক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, আমাদের মতামতের কোন গুরুত্ব দেননি। আগামী মে মাসের মধ্যে যদি সুযোগ হয় তবে আমি জমিলার জন্য একটি ঘরের ব্যবস্থা করে দেবো। কারণ আগামী মে মাসের ১৮ তারিখ পর্যন্ত আমাদের ক্ষমতা আছে।

বালিয়াখোড়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আওয়াল খান বলেন, জমিলা ঘর পাওয়ার যোগ্য। আগামীতে একটা ঘরের তালিকা আসবে। তবে এ রকম জমিলা আমার বালিয়াখোড়ায় আরো পাঁচশো আছে। আমি কাকে রেখে কাকে দেবো! আপনি এ ব্যাপারে ইউএনও স্যারের সাথে একটু কথা বলেন।

ঘিওর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আইরিন আক্তার বলেন, বর্তমানে জমি নাই, ঘর নাই প্রকল্পের কিছু ঘরের তালিকা আমার কাছে রয়েছে। তবে জমি আছে, ঘর নাই প্রকল্প এখন আমার হাতে নেই। পরবর্তীতে এ রকম বরাদ্দ আসলে অবশ্যই বিবেচনা করা হবে।

সুবিধাবঞ্চিতদের পাশে তারুণ্যের প্রচেষ্টা ফাউন্ডেশন

সুবিধাবঞ্চিতদের পাশে তারুণ্যের প্রচেষ্টা ফাউন্ডেশন

টিকাদান কর্মসূচির সফলতায় আন্তরিকতার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

টিকাদান কর্মসূচির সফলতায় আন্তরিকতার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

জট খুললো ৪০ তম বিসিএস পরীক্ষার

জট খুললো ৪০ তম বিসিএস পরীক্ষার

এশিয়ান ইউনিভার্সিটি’র উপাচার্যের জন্মদিনে দোয়া

এশিয়ান ইউনিভার্সিটি’র উপাচার্যের জন্মদিনে দোয়া

মানব সম্পদ উন্নয়নে উচ্চ শিক্ষার ভূমিকা

মানব সম্পদ উন্নয়নে উচ্চ শিক্ষার ভূমিকা

হিঙ্গুলী ইউনিয়ন এ ক্রিকেট ইভেন্ট ফাইনাল সম্পন্ন

হিঙ্গুলী ইউনিয়ন এ ক্রিকেট ইভেন্ট ফাইনাল সম্পন্ন

সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আজিজুল হক আর নেই

সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আজিজুল হক আর নেই

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ও প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড সমঝোতা চুক্তি

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ও প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড সমঝোতা চুক্তি

২৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বছর পেরিয়ে পায়নি বিজয় ফুল উৎসবের সরকারি অর্থ

২৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বছর পেরিয়ে পায়নি বিজয় ফুল উৎসবের সরকারি অর্থ

আজিজ ব্রিক ফিল্ড এর হুমকির মুখে কয়েকটি গ্রাম

আজিজ ব্রিক ফিল্ড এর হুমকির মুখে কয়েকটি গ্রাম

কোনোভাবেই মানা হচ্ছে না নদী খননের নিয়মনীতি

কোনোভাবেই মানা হচ্ছে না নদী খননের নিয়মনীতি

ধানের দাম বেশি থাকায় কৃষকদের মুখে তৃপ্তির হাসি

ধানের দাম বেশি থাকায় কৃষকদের মুখে তৃপ্তির হাসি

পাহাড়তলীর অবহেলিত মানুষের পাশে থাকতে চান ওয়াসিম

পাহাড়তলীর অবহেলিত মানুষের পাশে থাকতে চান ওয়াসিম

নরসিংদীর মেয়ে ফারাহ বাইডেন প্রশাসনে

নরসিংদীর মেয়ে ফারাহ বাইডেন প্রশাসনে

৭০০০ কপি গাছ নিয়ে বিপাকে কৃষক

৭০০০ কপি গাছ নিয়ে বিপাকে কৃষক

ভারমুক্ত হলেন আমিনুল হক বাদল

ভারমুক্ত হলেন আমিনুল হক বাদল

এরশাদবিরোধী আন্দোলনের মতো করে কর্মসূচি : মান্না

এরশাদবিরোধী আন্দোলনের মতো করে কর্মসূচি : মান্না

ঢাকায় ছুরিকাঘাতে নিহতের পরিচয় পাওয়া গেছে

ঢাকায় ছুরিকাঘাতে নিহতের পরিচয় পাওয়া গেছে

আসলেই কি নতুন ভবন ও নান্দনিক পার্ক পাচ্ছে তিতুমীর ?

আসলেই কি নতুন ভবন ও নান্দনিক পার্ক পাচ্ছে তিতুমীর ?

যুক্তরাষ্ট্রে  রপ্তানিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

যুক্তরাষ্ট্রে রপ্তানিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ জিয়াউল হক
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ মোহাম্মদ ছাদেকুর রহমান
প্রকাশকঃ আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ

বার্তা বিভাগ মোবাইল: +88 016 01 22 45 45
বাণিজ্য বিভাগ মোবাইল: +88 017 88 445 222

সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক কার্যালয়:
৩/২, আউটার সার্কুলার রোড, প্রশান্তি হাইটস, স্যুট # এ-৪ (পঞ্চম তলা), রাজারবাগ, ঢাকা-১২১৭ থেকে প্রকাশিত।

ই-মেইল: muktomonnews24@gmail.com
ই-মেইল: muktomontv@gmail.com


© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | মুক্তমন এসএসএস লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান | About Us | Privacy Policy